ঢাকা , শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

জল্পনার অবসান, নরেন্দ্র মোদীই হচ্ছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী

ভারতের লোকসভা নির্বাচন। সবার নজর দুজনের ওপর। বিজেপির নরেন্দ্র মোদি ও কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী। কে হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। যদিও এক রকম নিশ্চিত হয়েছে বিষয়টি। আবারও মসনদে বসতে যাচ্ছেন মোদি।

 

 

এ উপলক্ষে শুক্রবার (৭ জুন) স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১১টায় বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা বৈঠকে বসেছেন। যেখানে থেকে নরেন্দ্র মোদিকে সংসদ নেতা নির্বাচিত করা হবে। এরপর আজ বিকেলেই দেশটির রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়ে দ্রৌপদী মুর্মুর কাছে সরকার গঠনের দাবি জানাবেন এই জোট নেতারা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া ‍টুডের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

 

 

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির সংসদে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মোদি জোটের নেতা নির্বাচত হলে তৃতীয়বারের মতো বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পথ আরও প্রশস্ত হবে। আগামী রোববার তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে পারেন।

 

অপরদিকে সংসদে রাহুল যেন বিরোধী দলের নেতার আসনে বসেন, সে দাবি বেশ জোরদার হচ্ছে। ইতোমধ্যে কংগ্রেসসহ ও জোটের অনেক নেতা এই দাবি তুলেছেন।

 

 

এবারের নির্বাচনে চমক দেখিয়েছে কংগ্রেস। তারা নির্বাচনে ৯৯টি আসন পেয়েছে। কংগ্রেসের এই সাফল্যের কৃতিত্ব রাহুলকে দেওয়া হয়। এ ছাড়া কংগ্রেসের ইন্ডিয়া জোটও নির্বাচনে ২৩২টি আসনে জিতে নিজেদের সক্ষমতার জানান দিয়েছে।

 

একই দাবি তুলে কংগ্রেসের রাজ্যসভার এমপি বিবেক টাঙ্কা বলেন, রাহুল জি নির্বাচনী প্রচারে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তিনিই আমাদের নির্বাচনী মুখ ছিলেন। লোকসভায় সংসদীয় দলের নেতৃত্বের দায়িত্ব গ্রহণ করা তার কর্তব্য।

 

 

শিবসেনার (ইউবিটি) এমপি সঞ্জয় রাউতও গান্ধীর প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেন, রাহুল গান্ধী যদি নেতৃত্ব গ্রহণ করতে প্রস্তুত হন, তাহলে আমরা আপত্তি করব কেন? তিনি একাধিকবার নিজেকে জাতীয় নেতা হিসেবে প্রমাণ করেছেন। তিনি জনপ্রিয় নেতাদের একজন। আমরা সবাই তাকে চাই এবং তাকে ভালোবাসি। জোটের কোনো আপত্তি বা মতপার্থক্য নেই।

 

 

২০০৪ সালে রাজনীতিতে নাম লেখান রাহুল গান্ধী। তবে ৫৩ বছর বয়সী এই কংগ্রেস নেতা এখন পর্যন্ত কোনো সাংবিধানিক পদে বসেননি। যদিও এই সময়ের মধ্যে তার দল কংগ্রেস দেশের ক্ষমতায় পর্যন্ত ছিল।

 

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্য ইমেইল

জল্পনার অবসান, নরেন্দ্র মোদীই হচ্ছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ০৪:১৯:৫২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ জুন ২০২৪

ভারতের লোকসভা নির্বাচন। সবার নজর দুজনের ওপর। বিজেপির নরেন্দ্র মোদি ও কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী। কে হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। যদিও এক রকম নিশ্চিত হয়েছে বিষয়টি। আবারও মসনদে বসতে যাচ্ছেন মোদি।

 

 

এ উপলক্ষে শুক্রবার (৭ জুন) স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১১টায় বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা বৈঠকে বসেছেন। যেখানে থেকে নরেন্দ্র মোদিকে সংসদ নেতা নির্বাচিত করা হবে। এরপর আজ বিকেলেই দেশটির রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়ে দ্রৌপদী মুর্মুর কাছে সরকার গঠনের দাবি জানাবেন এই জোট নেতারা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া ‍টুডের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

 

 

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির সংসদে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মোদি জোটের নেতা নির্বাচত হলে তৃতীয়বারের মতো বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পথ আরও প্রশস্ত হবে। আগামী রোববার তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে পারেন।

 

অপরদিকে সংসদে রাহুল যেন বিরোধী দলের নেতার আসনে বসেন, সে দাবি বেশ জোরদার হচ্ছে। ইতোমধ্যে কংগ্রেসসহ ও জোটের অনেক নেতা এই দাবি তুলেছেন।

 

 

এবারের নির্বাচনে চমক দেখিয়েছে কংগ্রেস। তারা নির্বাচনে ৯৯টি আসন পেয়েছে। কংগ্রেসের এই সাফল্যের কৃতিত্ব রাহুলকে দেওয়া হয়। এ ছাড়া কংগ্রেসের ইন্ডিয়া জোটও নির্বাচনে ২৩২টি আসনে জিতে নিজেদের সক্ষমতার জানান দিয়েছে।

 

একই দাবি তুলে কংগ্রেসের রাজ্যসভার এমপি বিবেক টাঙ্কা বলেন, রাহুল জি নির্বাচনী প্রচারে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তিনিই আমাদের নির্বাচনী মুখ ছিলেন। লোকসভায় সংসদীয় দলের নেতৃত্বের দায়িত্ব গ্রহণ করা তার কর্তব্য।

 

 

শিবসেনার (ইউবিটি) এমপি সঞ্জয় রাউতও গান্ধীর প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেন, রাহুল গান্ধী যদি নেতৃত্ব গ্রহণ করতে প্রস্তুত হন, তাহলে আমরা আপত্তি করব কেন? তিনি একাধিকবার নিজেকে জাতীয় নেতা হিসেবে প্রমাণ করেছেন। তিনি জনপ্রিয় নেতাদের একজন। আমরা সবাই তাকে চাই এবং তাকে ভালোবাসি। জোটের কোনো আপত্তি বা মতপার্থক্য নেই।

 

 

২০০৪ সালে রাজনীতিতে নাম লেখান রাহুল গান্ধী। তবে ৫৩ বছর বয়সী এই কংগ্রেস নেতা এখন পর্যন্ত কোনো সাংবিধানিক পদে বসেননি। যদিও এই সময়ের মধ্যে তার দল কংগ্রেস দেশের ক্ষমতায় পর্যন্ত ছিল।