ঢাকা , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

বাঁশখালীতে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে ৫০৪ কোটি টাকার প্রকল্প

গতকাল একনেক সভায় পানি ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় বাঁশখালী ও আনোয়ারায় টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে ৮৭৪ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব উপকূলীয় এলাকার বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও দ্রুত মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৮ মে) রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের এনইসি সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দেন।

পাউবো সুত্রে জানা যায়, ‘বঙ্গোপসাগর ও সাঙ্গু নদীর তীরে ৭.৫ কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প একনেকে পাস হয়। তারমধ্যে ৬.৪ কি.মি সমুদ্র তীরবর্তী বাঁধের ঢাল সংরক্ষণ, ভাঙন রোধ ও পুনরাকৃতিকরণ। যেটা উপজেলার ছনুয়া, খানখানাবাদ ও বাহারছড়া উপকূলের বঙ্গোপসাগর অংশে নির্মিত হবে। বাকী ১.১ কি.মি নদীর তীর রক্ষায় সাধনপুর অংশের সাঙ্গু নদীতে বাঁধ নির্মিত হবে। এই প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫০৪ কোটি টাকা। জুলাই মাসের শুরুতে প্রকল্পের কাজ শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।’

এদিকে একনেকে প্রকল্পটি অনুমোদন পাওয়ার পরপরই বাঁশখালী সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান সিআইপি তাঁর ফেসবুক পেজে বিষয়টি তুলেন। তাঁর ফেসবুক পেজে বিষয়টি তুলে ধরতেই বাঁশখালীর মানুষেরা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে থাকেন।

মুজিবুর রহমান ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘আমি সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রকল্পটি বাস্তবায়নে বেশ কয়েকবার পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে প্রকল্পটি সরকারের উচ্চপর্যায়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করি। বাঁশখালীর পাশ্ববর্তী উপজেলা আনোয়ারার সন্তান অর্থ-প্রতিমন্ত্রী প্রকল্পটি অনুমোদনে শুরু থেকেই সক্রিয় হন। তিনি প্রকল্পটি যাতে দ্রুত অনুমোদন পায় সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নজরে আনেন। এই বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজ শেষ হলে আনোয়ারা-বাঁশখালী উপকূল হবে নতুন অর্থনৈতিক হাব, ইনশাআল্লাহ।’

এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী অনুপম পাল বলেন, ‘বাঁশখালীতে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে একটা প্রকল্পের প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছিলো। দীর্ঘদিন গত মঙ্গলবার প্রকল্পটি একনেকে পাস হয়। প্রকল্পে বঙ্গোপসাগর ও সাঙ্গু নদীর তীরে ৭.৫ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের কাজ করা হবে। তারমধ্যে ৬.৪ কি.মি সমুদ্র উপকূলবর্তী বাঁধের ঢাল সংরক্ষণ, ভাঙন রোধ ও পুনরাকৃতিকরণ। যেটা উপজেলার ছনুয়া, খানখানাবাদ ও বাহারছড়া উপকূলের বঙ্গোপসাগর অংশে নির্মিত হবে। বাকী ১.১ কি.মি নদীর তীর রক্ষায় সাধনপুর অংশের সাঙ্গু নদীতে বাঁধ নির্মিত হবে। এই প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫০৪ কোটি টাকা।’

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্য ইমেইল

বাঁশখালীতে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে ৫০৪ কোটি টাকার প্রকল্প

প্রকাশিত : ০৯:৫৯:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪

গতকাল একনেক সভায় পানি ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় বাঁশখালী ও আনোয়ারায় টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে ৮৭৪ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব উপকূলীয় এলাকার বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও দ্রুত মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৮ মে) রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের এনইসি সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দেন।

পাউবো সুত্রে জানা যায়, ‘বঙ্গোপসাগর ও সাঙ্গু নদীর তীরে ৭.৫ কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণ প্রকল্প একনেকে পাস হয়। তারমধ্যে ৬.৪ কি.মি সমুদ্র তীরবর্তী বাঁধের ঢাল সংরক্ষণ, ভাঙন রোধ ও পুনরাকৃতিকরণ। যেটা উপজেলার ছনুয়া, খানখানাবাদ ও বাহারছড়া উপকূলের বঙ্গোপসাগর অংশে নির্মিত হবে। বাকী ১.১ কি.মি নদীর তীর রক্ষায় সাধনপুর অংশের সাঙ্গু নদীতে বাঁধ নির্মিত হবে। এই প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫০৪ কোটি টাকা। জুলাই মাসের শুরুতে প্রকল্পের কাজ শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।’

এদিকে একনেকে প্রকল্পটি অনুমোদন পাওয়ার পরপরই বাঁশখালী সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান সিআইপি তাঁর ফেসবুক পেজে বিষয়টি তুলেন। তাঁর ফেসবুক পেজে বিষয়টি তুলে ধরতেই বাঁশখালীর মানুষেরা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে থাকেন।

মুজিবুর রহমান ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘আমি সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রকল্পটি বাস্তবায়নে বেশ কয়েকবার পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে প্রকল্পটি সরকারের উচ্চপর্যায়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করি। বাঁশখালীর পাশ্ববর্তী উপজেলা আনোয়ারার সন্তান অর্থ-প্রতিমন্ত্রী প্রকল্পটি অনুমোদনে শুরু থেকেই সক্রিয় হন। তিনি প্রকল্পটি যাতে দ্রুত অনুমোদন পায় সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নজরে আনেন। এই বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজ শেষ হলে আনোয়ারা-বাঁশখালী উপকূল হবে নতুন অর্থনৈতিক হাব, ইনশাআল্লাহ।’

এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী অনুপম পাল বলেন, ‘বাঁশখালীতে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে একটা প্রকল্পের প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছিলো। দীর্ঘদিন গত মঙ্গলবার প্রকল্পটি একনেকে পাস হয়। প্রকল্পে বঙ্গোপসাগর ও সাঙ্গু নদীর তীরে ৭.৫ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের কাজ করা হবে। তারমধ্যে ৬.৪ কি.মি সমুদ্র উপকূলবর্তী বাঁধের ঢাল সংরক্ষণ, ভাঙন রোধ ও পুনরাকৃতিকরণ। যেটা উপজেলার ছনুয়া, খানখানাবাদ ও বাহারছড়া উপকূলের বঙ্গোপসাগর অংশে নির্মিত হবে। বাকী ১.১ কি.মি নদীর তীর রক্ষায় সাধনপুর অংশের সাঙ্গু নদীতে বাঁধ নির্মিত হবে। এই প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫০৪ কোটি টাকা।’