ঢাকা , সোমবার, ২০ মে ২০২৪
বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে

৭০ শতাংশ সাংবাদিকই হামলা-হুমকির মুখে রিপোর্ট করেন: জাতিসংঘ

Oplus_131072

বিশ্বের ১২৯টি দেশের ৭০ শতাংশ পরিবেশ সাংবাদিক তাদের চাকরি সংক্রান্ত হামলা, হুমকি বা চাপের মুখে পড়ে রিপোর্ট করছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

 

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জাতিসংঘ জানায়, তাদের মধ্যে পাঁচজনের মধ্যে দু’জন পরবর্তীতে শারীরিক সহিংসতার শিকার হয়েছেন। ভোটের জন্য ৯শ’টিরও বেশি সাংবাদিককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। জাতিসংঘের শিক্ষা, বৈজ্ঞানিক ও সাংস্কৃতিক সংস্থা পরিবেশ ও জলবায়ু নিয়ে রিপোর্টকারী সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বৃদ্ধি এবং ভয় দেখানোর বিষয়ে সতর্ক করেছে।

 

 

 

 

এক বিবৃতিতে ইউনেস্কোর মহাপরিচালক অড্রে আজোলে বলেছেন, চলমান পরিবেশগত সংকট সম্পর্কে নির্ভরযোগ্য বৈজ্ঞানিক তথ্য ব্যতীত, আমরা কখনোই এটি কাটিয়ে উঠার আশা করতে পারি না। এখনো আমরা যে সাংবাদিকদের ওপর নির্ভর করি এই বিষয়ের তদন্ত করতে তারা সারা বিশ্বে অগ্রহণযোগ্যভাবে উচ্চ ঝুঁকির সম্মুখীন। জলবায়ু-সম্পর্কিত বিভ্রান্তি সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপকভাবে চলছে।

 

ইউনেস্কো বলছে, ২০০৯ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে অন্তত ৭৪৯ সাংবাদিক এবং নিউজ মিডিয়া পরিবেশগত বিষয়ে রিপোর্ট করে খুন, শারীরিক নির্যাতন, আটক ও গ্রেপ্তার, অনলাইন হয়রানি বা আইনি আক্রমণের শিকার হয়েছেন। ২০১৯ এবং ২০২৩-এর মধ্যে আক্রমণ ঘটেছে ৩০০টিরও বেশি, যা আগের পাঁচ বছরের তুলনায় ৪২ শতাংশ বেশি। সমস্যাটি বিশ্বব্যাপী, বিশ্বের সমস্ত অঞ্চলের ৮৯টি দেশে হামলা হচ্ছে।

 

 

 

 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ১৫ বছরে তাদের কাজের জন্য কমপক্ষে ৪৪ জন পরিবেশবাদী সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছে। মাত্র পাঁচটি ক্ষেত্রে দোষী সাব্যস্ত হয়েছে। শারীরিক নির্যাতনের শিকার জরিপে অংশ নেওয়া সাংবাদিকদের এক-তৃতীয়াংশ বলেছেন, তাদের সেন্সর করা হয়েছে।

 

প্রায় ৪৫ শতাংশ সাংবাদিক বলেছেন, তারা হামলার ভয়ে তাদের উৎস প্রকাশ করার ভয়ে বা তাদের গল্পগুলো সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের স্বার্থের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ার কারণে পরিবেশকে কভার করার সময় তারা নিজেরাই সেন্সর আরোপ করেছিল।

 

 

 

 

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, এই সপ্তাহে চিলিতে একটি সংবাদ স্বাধীনতা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে ইউনেস্কো নিপীড়নের সম্মুখীন ৫০০টিরও বেশি পরিবেশগত সাংবাদিকদের আইনি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদানের জন্য একটি অনুদান কর্মসূচি চালু করার ঘোষণা দেবে।

 

 

 

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্য ইমেইল

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে

৭০ শতাংশ সাংবাদিকই হামলা-হুমকির মুখে রিপোর্ট করেন: জাতিসংঘ

প্রকাশিত : ০৮:৫০:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪

বিশ্বের ১২৯টি দেশের ৭০ শতাংশ পরিবেশ সাংবাদিক তাদের চাকরি সংক্রান্ত হামলা, হুমকি বা চাপের মুখে পড়ে রিপোর্ট করছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

 

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জাতিসংঘ জানায়, তাদের মধ্যে পাঁচজনের মধ্যে দু’জন পরবর্তীতে শারীরিক সহিংসতার শিকার হয়েছেন। ভোটের জন্য ৯শ’টিরও বেশি সাংবাদিককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। জাতিসংঘের শিক্ষা, বৈজ্ঞানিক ও সাংস্কৃতিক সংস্থা পরিবেশ ও জলবায়ু নিয়ে রিপোর্টকারী সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বৃদ্ধি এবং ভয় দেখানোর বিষয়ে সতর্ক করেছে।

 

 

 

 

এক বিবৃতিতে ইউনেস্কোর মহাপরিচালক অড্রে আজোলে বলেছেন, চলমান পরিবেশগত সংকট সম্পর্কে নির্ভরযোগ্য বৈজ্ঞানিক তথ্য ব্যতীত, আমরা কখনোই এটি কাটিয়ে উঠার আশা করতে পারি না। এখনো আমরা যে সাংবাদিকদের ওপর নির্ভর করি এই বিষয়ের তদন্ত করতে তারা সারা বিশ্বে অগ্রহণযোগ্যভাবে উচ্চ ঝুঁকির সম্মুখীন। জলবায়ু-সম্পর্কিত বিভ্রান্তি সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপকভাবে চলছে।

 

ইউনেস্কো বলছে, ২০০৯ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে অন্তত ৭৪৯ সাংবাদিক এবং নিউজ মিডিয়া পরিবেশগত বিষয়ে রিপোর্ট করে খুন, শারীরিক নির্যাতন, আটক ও গ্রেপ্তার, অনলাইন হয়রানি বা আইনি আক্রমণের শিকার হয়েছেন। ২০১৯ এবং ২০২৩-এর মধ্যে আক্রমণ ঘটেছে ৩০০টিরও বেশি, যা আগের পাঁচ বছরের তুলনায় ৪২ শতাংশ বেশি। সমস্যাটি বিশ্বব্যাপী, বিশ্বের সমস্ত অঞ্চলের ৮৯টি দেশে হামলা হচ্ছে।

 

 

 

 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ১৫ বছরে তাদের কাজের জন্য কমপক্ষে ৪৪ জন পরিবেশবাদী সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছে। মাত্র পাঁচটি ক্ষেত্রে দোষী সাব্যস্ত হয়েছে। শারীরিক নির্যাতনের শিকার জরিপে অংশ নেওয়া সাংবাদিকদের এক-তৃতীয়াংশ বলেছেন, তাদের সেন্সর করা হয়েছে।

 

প্রায় ৪৫ শতাংশ সাংবাদিক বলেছেন, তারা হামলার ভয়ে তাদের উৎস প্রকাশ করার ভয়ে বা তাদের গল্পগুলো সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের স্বার্থের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ার কারণে পরিবেশকে কভার করার সময় তারা নিজেরাই সেন্সর আরোপ করেছিল।

 

 

 

 

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, এই সপ্তাহে চিলিতে একটি সংবাদ স্বাধীনতা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে ইউনেস্কো নিপীড়নের সম্মুখীন ৫০০টিরও বেশি পরিবেশগত সাংবাদিকদের আইনি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদানের জন্য একটি অনুদান কর্মসূচি চালু করার ঘোষণা দেবে।