ঢাকা , সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪
মেসির ঝলক দেখতে মরিয়া ফুটবল প্রেমিরা

চিলিকে হারিয়ে নকআউটে চোখ চ্যাম্পিয়ান আর্জেন্টিনার

আর্জেন্টিনার শিবিরে উৎসবের আবহ। দুদিন আগে ৩৭ বছরে পা দিয়েছেন তাদের দলনেতা ও প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি। তবে সেই উৎসবকে একপাশে রেখে কোপা আমেরিকার দ্বিতীয় ম্যাচের জন্য প্রস্তুত বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

 

নিউ জার্সিতে বাংলাদেশ সময় বুধবার সকাল ৭টায় নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পুরোনো শত্রু চিলির মুখোমুখি হবে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। নিজেদের প্রথম ম্যাচে কানাডাকে হারায় আর্জেন্টিনা।

 

 

চিলির বিপক্ষে এ ম্যাচ জিতলে নকআউট পর্ব নিশ্চিত হবে লা আলবিসেস্তেতাদের। এদিকে এ-গ্রুপের আরেক ম্যাচে কানাডার মুখোমুখি হবে পেরু।

 

এর আগে গত আসরে শিরোপা জয়ের পথে গ্রুপ পর্বে চিলি মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা। সে ম্যাচটি ড্র করেছিল মেসি-ডি মারিয়ারা। এ ছাড়া ২০১৫ ও ২০১৬ সালে ফাইনালে চিলির কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিল আর্জেন্টিনা।

 

 

যদিও এবার শুরুটা ভালো হয়নি চিলির। নিজেদের প্রথম ম্যাচে পেরুর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেন ক্লাদিও ব্রাভোর দল। কাজেই কিছুটা ব্যাকফুটে রয়েছে তারা। ২০১৬ সালের কোপার সেই ফাইনালে পর আরও ছয়বার মুখোমুখি হয়েছে দুদল।

 

পরিসংখ্যানে এগিয়ে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। এই ছয় ম্যাচে চিলি একবারও হারাতে পারেনি আর্জেন্টিনাকে। তিনটিতে জয় পায় মেসিরা আর বাকি তিনটি ড্র হয়।

 

 

এ ছাড়া আরও একটি ইতিহাস আর্জেন্টিনার পক্ষে। সানচেজ-ব্রাভোদের প্রধান কোচের দায়িত্বে আছেন কোচ রিকার্দো গার্সিয়া।

 

স্বদেশি এই কোচের বিপক্ষে পঞ্চমবার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা। আগের চারবারের দেখায় একবারও হারেনি লা আলবিসেলেস্তেরা। এ ছাড়া স্কালোনির শিষ্যরা রয়েছেন দারুণ ফর্মে। নিজেদের সর্বশেষ ১৫ ম্যাচের ১৪টিতে জিতেছে আর্জেন্টিনা। এ ছাড়া ১৪ ম্যাচের ১২টিতে কোনো গোল হজম করেনি বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে চিলি তাদের শেষ ৯ ম্যাচের ৫টিতেই গোল করতে ব্যর্থ হয়।

 

বুধবার ২৮তম বারের মতো মুখোমুখি হবে দুদল। এর মধ্যে ১৪টিতে জিতেছে আর্জেন্টিনা। চিলির জয় পাঁচটিতে। ২০১৫ ও ২০১৬ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে নাটকীয় পেনাল্টি শুটআউটে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করেছিল চিলিয়ানরা।

 

জুলিয়ান আলভারেজ ও লাউতারো মার্তিনেজের গোলে গত সপ্তাহে কানাডাকে ২-০ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার শিরোপা ধরে রাখার মিশন শুরু করে আর্জেন্টিনা। সে ম্যাচে গোল না পেলেও দারুণ ছন্দে ছিলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি।

 

১৮ মাস আগে কাতারে বিশ্বকাপ জেতে আর্জেন্টিনা। এরপর থেকে ১৫ ম্যাচের ১৪টিতে জয় পেয়েছে তারা। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য গত পাঁচ বছরে খেলা ৬০ ম্যাচের ৫৮টিতে অপরাজিত মেসিরা।

 

 

শুধু গোল করা নয়, রক্ষণেও দুর্দান্ত আলবিসেলেস্তারা। কোপায় আর্জেন্টিনা তাদের শেষ ছয় ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতে এবং সম্প্রতি খেলা ছয়টি ম্যাচের চারটিতে কোনো গোল হজম করেনি।

 

চিলির বিপক্ষে এই ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে এক ম্যাচ হাতে থাকতে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত হবে আর্জেন্টিনার।

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্য ইমেইল

মেসির ঝলক দেখতে মরিয়া ফুটবল প্রেমিরা

চিলিকে হারিয়ে নকআউটে চোখ চ্যাম্পিয়ান আর্জেন্টিনার

প্রকাশিত : ০৬:৫৯:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

আর্জেন্টিনার শিবিরে উৎসবের আবহ। দুদিন আগে ৩৭ বছরে পা দিয়েছেন তাদের দলনেতা ও প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি। তবে সেই উৎসবকে একপাশে রেখে কোপা আমেরিকার দ্বিতীয় ম্যাচের জন্য প্রস্তুত বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

 

নিউ জার্সিতে বাংলাদেশ সময় বুধবার সকাল ৭টায় নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পুরোনো শত্রু চিলির মুখোমুখি হবে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। নিজেদের প্রথম ম্যাচে কানাডাকে হারায় আর্জেন্টিনা।

 

 

চিলির বিপক্ষে এ ম্যাচ জিতলে নকআউট পর্ব নিশ্চিত হবে লা আলবিসেস্তেতাদের। এদিকে এ-গ্রুপের আরেক ম্যাচে কানাডার মুখোমুখি হবে পেরু।

 

এর আগে গত আসরে শিরোপা জয়ের পথে গ্রুপ পর্বে চিলি মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা। সে ম্যাচটি ড্র করেছিল মেসি-ডি মারিয়ারা। এ ছাড়া ২০১৫ ও ২০১৬ সালে ফাইনালে চিলির কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিল আর্জেন্টিনা।

 

 

যদিও এবার শুরুটা ভালো হয়নি চিলির। নিজেদের প্রথম ম্যাচে পেরুর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেন ক্লাদিও ব্রাভোর দল। কাজেই কিছুটা ব্যাকফুটে রয়েছে তারা। ২০১৬ সালের কোপার সেই ফাইনালে পর আরও ছয়বার মুখোমুখি হয়েছে দুদল।

 

পরিসংখ্যানে এগিয়ে লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। এই ছয় ম্যাচে চিলি একবারও হারাতে পারেনি আর্জেন্টিনাকে। তিনটিতে জয় পায় মেসিরা আর বাকি তিনটি ড্র হয়।

 

 

এ ছাড়া আরও একটি ইতিহাস আর্জেন্টিনার পক্ষে। সানচেজ-ব্রাভোদের প্রধান কোচের দায়িত্বে আছেন কোচ রিকার্দো গার্সিয়া।

 

স্বদেশি এই কোচের বিপক্ষে পঞ্চমবার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা। আগের চারবারের দেখায় একবারও হারেনি লা আলবিসেলেস্তেরা। এ ছাড়া স্কালোনির শিষ্যরা রয়েছেন দারুণ ফর্মে। নিজেদের সর্বশেষ ১৫ ম্যাচের ১৪টিতে জিতেছে আর্জেন্টিনা। এ ছাড়া ১৪ ম্যাচের ১২টিতে কোনো গোল হজম করেনি বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে চিলি তাদের শেষ ৯ ম্যাচের ৫টিতেই গোল করতে ব্যর্থ হয়।

 

বুধবার ২৮তম বারের মতো মুখোমুখি হবে দুদল। এর মধ্যে ১৪টিতে জিতেছে আর্জেন্টিনা। চিলির জয় পাঁচটিতে। ২০১৫ ও ২০১৬ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে নাটকীয় পেনাল্টি শুটআউটে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করেছিল চিলিয়ানরা।

 

জুলিয়ান আলভারেজ ও লাউতারো মার্তিনেজের গোলে গত সপ্তাহে কানাডাকে ২-০ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার শিরোপা ধরে রাখার মিশন শুরু করে আর্জেন্টিনা। সে ম্যাচে গোল না পেলেও দারুণ ছন্দে ছিলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি।

 

১৮ মাস আগে কাতারে বিশ্বকাপ জেতে আর্জেন্টিনা। এরপর থেকে ১৫ ম্যাচের ১৪টিতে জয় পেয়েছে তারা। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য গত পাঁচ বছরে খেলা ৬০ ম্যাচের ৫৮টিতে অপরাজিত মেসিরা।

 

 

শুধু গোল করা নয়, রক্ষণেও দুর্দান্ত আলবিসেলেস্তারা। কোপায় আর্জেন্টিনা তাদের শেষ ছয় ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতে এবং সম্প্রতি খেলা ছয়টি ম্যাচের চারটিতে কোনো গোল হজম করেনি।

 

চিলির বিপক্ষে এই ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে এক ম্যাচ হাতে থাকতে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত হবে আর্জেন্টিনার।