ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
একাধিক বড় পরিসরে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী

ত্রাণের অপেক্ষায় থাকা ফিলিস্তিনি শিশুদের উপর ইসরায়েলের হামলা, নিহত ১৯

গাজা ভূখণ্ডে ত্রাণের অপেক্ষায় থাকা ফিলিস্তিনি শিশুদের ওপর আবারও নির্বিচারে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী। এতে ১৯ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও প্রায় ৫০ জন।

 

রোববার (৩১ মার্চ) সকালে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা। এর আগে ওই প্রতিবেদনে তাৎক্ষণিকভাবে নিহতের সংখ্যা ১৩ বলে জানানো হয়েছিল। পরে তা বেড়ে ১৯ জনে দাঁড়িয়েছি।

 

প্রতিবেদনে বলা হয়, গাজার আল কুয়েত গোলচত্বরে ত্রাণের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকা ফিলিস্তিনিদের ভিড়ে গুলিবর্ষণ করে ইসরায়েলি দখলদাররা। সাহায্য চাওয়া ফিলিস্তিনিরা জানুয়ারি থেকেই ওই গোলচত্বরে জড়ো হচ্ছেন এবং প্রতিদিনই ইসরায়েলি হামলার শিকার হচ্ছেন।

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, কয়েকটি চলন্ত ট্রাক থেকে খাবার পেতে চেষ্টা করে ফিলিস্তিনিরা। এ সময় ইসরায়েলি সেনারা গুলি চালায় এবং এতে বহু লোক হতাহত হন। হামলার পর কিছু আহত লোক মাটিতেও পড়ে ছিল।

 

ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী এর আগে খাদ্য ও সহায়তা সরঞ্জাম সরবরাহকারী ট্রাকের অপেক্ষায় থাকা ফিলিস্তিনি
শিশুদের ওপর একাধিক বড় পরিসরে হামলা চালিয়েছে এবং এতে বহু সাহায্যপ্রার্থী ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

 

প্যালেস্টাইন রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, গত শুক্রবারেও কুয়েত গোলচত্বরে হামলা চালায় ইসরায়েলিরা। সেদিন ময়দা এবং ত্রাণের অন্যান্য পণ্য বহনকারী ট্রাকগুলি সেখানে জড়ো হয়েছিল। এটি দেখে হাজার হাজার ফিলিস্তিনি সেখানে ভিড় জমায়। এরপর সাহায্য বিতরণের সময় ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতে পাঁচ ফিলিস্তিনি নিহত হন।’

 

 

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্য ইমেইল

একাধিক বড় পরিসরে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী

ত্রাণের অপেক্ষায় থাকা ফিলিস্তিনি শিশুদের উপর ইসরায়েলের হামলা, নিহত ১৯

প্রকাশিত : ০৫:১০:৫৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

গাজা ভূখণ্ডে ত্রাণের অপেক্ষায় থাকা ফিলিস্তিনি শিশুদের ওপর আবারও নির্বিচারে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী। এতে ১৯ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও প্রায় ৫০ জন।

 

রোববার (৩১ মার্চ) সকালে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা। এর আগে ওই প্রতিবেদনে তাৎক্ষণিকভাবে নিহতের সংখ্যা ১৩ বলে জানানো হয়েছিল। পরে তা বেড়ে ১৯ জনে দাঁড়িয়েছি।

 

প্রতিবেদনে বলা হয়, গাজার আল কুয়েত গোলচত্বরে ত্রাণের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকা ফিলিস্তিনিদের ভিড়ে গুলিবর্ষণ করে ইসরায়েলি দখলদাররা। সাহায্য চাওয়া ফিলিস্তিনিরা জানুয়ারি থেকেই ওই গোলচত্বরে জড়ো হচ্ছেন এবং প্রতিদিনই ইসরায়েলি হামলার শিকার হচ্ছেন।

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, কয়েকটি চলন্ত ট্রাক থেকে খাবার পেতে চেষ্টা করে ফিলিস্তিনিরা। এ সময় ইসরায়েলি সেনারা গুলি চালায় এবং এতে বহু লোক হতাহত হন। হামলার পর কিছু আহত লোক মাটিতেও পড়ে ছিল।

 

ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী এর আগে খাদ্য ও সহায়তা সরঞ্জাম সরবরাহকারী ট্রাকের অপেক্ষায় থাকা ফিলিস্তিনি
শিশুদের ওপর একাধিক বড় পরিসরে হামলা চালিয়েছে এবং এতে বহু সাহায্যপ্রার্থী ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

 

প্যালেস্টাইন রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, গত শুক্রবারেও কুয়েত গোলচত্বরে হামলা চালায় ইসরায়েলিরা। সেদিন ময়দা এবং ত্রাণের অন্যান্য পণ্য বহনকারী ট্রাকগুলি সেখানে জড়ো হয়েছিল। এটি দেখে হাজার হাজার ফিলিস্তিনি সেখানে ভিড় জমায়। এরপর সাহায্য বিতরণের সময় ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতে পাঁচ ফিলিস্তিনি নিহত হন।’