ঢাকা , সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪

শেষ কর্মদিবসে অবরুদ্ধ বুয়েটের উপাচার্য

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) উপাচার্য অধ্যাপক ড. সত্য প্রসাদ মজুমদারকে শেষ কর্মদিবসে অবরুদ্ধ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

 

সোমবার (২৪ জুন) বিকেলে বুয়েটের প্রশাসনিক ভবনস্থ নিজ কার্যালয়ের সামনে অবরুদ্ধ হন তিনি।

 

 

অবরোধ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া বিশ্ববিদ্যালয়টির এক শিক্ষক বলেন, আমরা উপাচার্যের অফিসের সামনে অবস্থান করছি এবং তাকে অবরুদ্ধ করেছি। কারণ, আজ তার শেষ কর্মদিবস। তিনি বিদায় নেওয়ার আগে একটি কালো আইন করে যাচ্ছেন। আমরা এটি বাতিলের দাবিতে অবস্থান করছি।

 

 

এর আগে, গত ২৩ জুন (রোববার) বুয়েটের রেজিস্ট্রার ও সিন্ডিকেটের সেক্রেটারি অধ্যাপক ড. মো. ফোরকান উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়। মূলত, এই আদেশের প্রতিবাদেই কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের এই অবরোধ কর্মসূচি।

 

অফিস আদেশ সংবলিত বিজ্ঞপ্তিটিতে উল্লেখ করা হয়, গত ১৮-১০-২০২৩ তারিখে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স কমিটির ৫৫তম অধিবেশনের কার্যবিবরণীর প্রস্তাব নং ফ ২০৩০৭০৫ এর সিদ্ধান্ত নিম্নরূপে পরিবর্তন করে ২৭-১২-২০২৩ তারিখে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের ৫৪০তম সভায় নিম্নবর্ণিত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ২৭-১২-২০২৩ তারিখের পরবর্তী সময়ে নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো কর্মকর্তা/কর্মচারী পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রাপ্যতার জন্য বিবেচিত হবেন না; নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে ইতোমধ্যে যাদেরকে পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রদান করা হয়েছে তা অপরিবর্তিত থাকবে।

 

নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে ইতোমধ্যে যাদেরকে পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রদান করা হয়েছে, তাদের চাকরি শেষ হলে/পদত্যাগ করলে/অপসারণ/ পদচ্যুত করা হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তাদের অর্গানোগ্রাম বর্হিভূত পদ বিলুপ্ত হবে এবং অর্গানোগ্রামভুক্ত মূল পদ শূন্য হবে; ২৭-১২-২০২৩ তারিখের পরবর্তী সময়ে প্রাপ্যতার ক্ষেত্রে কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রদানে সরকারি নীতিমালা এবং ইউজিসি অনুমোদিত অর্গানোগ্রাম প্রযোজ্য হবে।

 

 

কোনো কর্মকর্তা ও কর্মচারী যদি সরকারি নীতিমালায় ইতোমধ্যে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় প্রণীত নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে প্রাপ্ত গ্রেডের চেয়ে উচ্চতর গ্রেড অথবা পদ প্রাপ্ত হন তাহলে তা প্রদান করা হবে।

 

 

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ২৫ জুন অধ্যাপক ড. সত্য প্রসাদ মজুমদার বুয়েটের উপাচার্য পদে নিয়োগ পান। বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ চার বছরের জন্য তাকে এই পদে নিয়োগ দেন। সেই অনুযায়ী আগামীকাল তার উপাচার্য পদের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা।

 

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অন্য ইমেইল

শেষ কর্মদিবসে অবরুদ্ধ বুয়েটের উপাচার্য

প্রকাশিত : ০৮:৪০:১৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) উপাচার্য অধ্যাপক ড. সত্য প্রসাদ মজুমদারকে শেষ কর্মদিবসে অবরুদ্ধ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

 

সোমবার (২৪ জুন) বিকেলে বুয়েটের প্রশাসনিক ভবনস্থ নিজ কার্যালয়ের সামনে অবরুদ্ধ হন তিনি।

 

 

অবরোধ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া বিশ্ববিদ্যালয়টির এক শিক্ষক বলেন, আমরা উপাচার্যের অফিসের সামনে অবস্থান করছি এবং তাকে অবরুদ্ধ করেছি। কারণ, আজ তার শেষ কর্মদিবস। তিনি বিদায় নেওয়ার আগে একটি কালো আইন করে যাচ্ছেন। আমরা এটি বাতিলের দাবিতে অবস্থান করছি।

 

 

এর আগে, গত ২৩ জুন (রোববার) বুয়েটের রেজিস্ট্রার ও সিন্ডিকেটের সেক্রেটারি অধ্যাপক ড. মো. ফোরকান উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়। মূলত, এই আদেশের প্রতিবাদেই কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের এই অবরোধ কর্মসূচি।

 

অফিস আদেশ সংবলিত বিজ্ঞপ্তিটিতে উল্লেখ করা হয়, গত ১৮-১০-২০২৩ তারিখে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স কমিটির ৫৫তম অধিবেশনের কার্যবিবরণীর প্রস্তাব নং ফ ২০৩০৭০৫ এর সিদ্ধান্ত নিম্নরূপে পরিবর্তন করে ২৭-১২-২০২৩ তারিখে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের ৫৪০তম সভায় নিম্নবর্ণিত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ২৭-১২-২০২৩ তারিখের পরবর্তী সময়ে নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো কর্মকর্তা/কর্মচারী পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রাপ্যতার জন্য বিবেচিত হবেন না; নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে ইতোমধ্যে যাদেরকে পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রদান করা হয়েছে তা অপরিবর্তিত থাকবে।

 

নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে ইতোমধ্যে যাদেরকে পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রদান করা হয়েছে, তাদের চাকরি শেষ হলে/পদত্যাগ করলে/অপসারণ/ পদচ্যুত করা হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তাদের অর্গানোগ্রাম বর্হিভূত পদ বিলুপ্ত হবে এবং অর্গানোগ্রামভুক্ত মূল পদ শূন্য হবে; ২৭-১২-২০২৩ তারিখের পরবর্তী সময়ে প্রাপ্যতার ক্ষেত্রে কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে পদোন্নতি, পদোন্নয়ন, সিলেকশন গ্রেড, সিনিয়র গ্রেড স্কেল প্রদানে সরকারি নীতিমালা এবং ইউজিসি অনুমোদিত অর্গানোগ্রাম প্রযোজ্য হবে।

 

 

কোনো কর্মকর্তা ও কর্মচারী যদি সরকারি নীতিমালায় ইতোমধ্যে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় প্রণীত নীতিমালা-২০১৫ এর মাধ্যমে প্রাপ্ত গ্রেডের চেয়ে উচ্চতর গ্রেড অথবা পদ প্রাপ্ত হন তাহলে তা প্রদান করা হবে।

 

 

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ২৫ জুন অধ্যাপক ড. সত্য প্রসাদ মজুমদার বুয়েটের উপাচার্য পদে নিয়োগ পান। বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ চার বছরের জন্য তাকে এই পদে নিয়োগ দেন। সেই অনুযায়ী আগামীকাল তার উপাচার্য পদের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা।